সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫:০১ অপরাহ্ন

সর্বোশেষ:
সহবাসের জন্য মাসিক বন্ধ করার বিধান কি? পুরুষদের হাতে মেহেদী দেওয়া! হস্তমৈথুনকারীর উপর গোসল ফরয নয়? যৌনি পথে বীর্যপাত না হলে গোসল করতে হবে না? পাকা ফ্লোর পবিত্র করার নিয়ম ঋতুস্রাব মনে করে নামায ছেড়ে দেওয়া কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ে কি বৈধ? জন্মবার্ষিকী কি শিরক? স্ত্রীর অনুমতি ছাড়া সফর বৈধ নয় কেন? হযরত ঈসা আ.কে অবৈধ সন্তান বলা মাহরামের সাথে বিয়ে অবৈধ হওয়ার রহস্য বাসর রাতে নববধূর সহবসে বারণ বিড়ি সিগারেট সেবন করা কি বৈধ? জবেহকৃত পশুর কোন কোন অংশ খাওয়া হারাম? একাধিক স্ত্রীর সাথে সহবাস কিভাবে করবে? ইসলামে কি পীর মুরিদ আছে? লা-মাযহাবীর পিছনে নামায পড়া পশ্চাদ দিক হতে স্ত্রীর যৌনাঙ্গে সহবাস করা খতনা উপলক্ষে অনুষ্ঠান করা কি বৈধ? অহংকার

লা-মাযহাবীর পিছনে নামায পড়া

ইয়াকুব আলী

সিরাজগঞ্জ।

জিজ্ঞাসাঃ হানাফী মাযহাব অনুসারী ব্যক্তি কোন কোন নামাযে লা-মাযহাবী বা অন্য মাযহাব অনুসারী ইমামের ইক্তেদা করতে পারবে আর কোন কোন নামাযে পারবে না?

সমাধানঃ হানাফী মাযহাব অনুসারী ব্যক্তি সকল নামাযেই অন্য মাযহাব অনুসারী ইমামের ইক্তেদা করতে পারবে। তবে শর্ত হলো, হানাফী মুক্তাদী এ ব্যাপারে নিশ্চিত থাকতে হবে যে, ইমাম সাহেব হানাফী মাযহাব মতে প্রমাণিত নামাযের সকল ফরয, ওয়াজিব ও সুন্নাতের প্রতি খেয়াল রাখেন।

মুক্তাদী এ ব্যাপারে নিশ্চিত হলে যে কোন নামাযে ভিন্ন  মাযহাব অনুসারী ইমামের ইক্তেদা করতে পারবে।

পক্ষান্তরে, হানাফী মাযহাব অনুসারী মুক্তাদী যদি এ ব্যাপারে নিশ্চিত থাকেন যে, ইমাম সাহেব হানাফী মাযহাব মতে প্রমাণিত নামাযের ভিতর ও বাহিরের ফরযগুলোর প্রতি খেয়াল রাখেন না, তা হলে হানাফী মুক্তাদির জন্য তার ইক্তেদা করা জায়েয হবে না। (যেমন ভিন্ন মাযহাবের অনুসারী কোন ইমাম যদি নিজ অনুসৃত মাযহাব মতে রমযান মাসে বিতিরের নামায দুই রাক’আত পড়ে সালাম ফিরিয়ে পুনরায় এক রাক’আত পড়ে, তা হলে তার পিছনে হানাফী মুক্তাদী ইক্তেদা করতে পারবে না।তদ্রুপ হানাফী মাযহাব মতে কোন ইমাম মুকিম অথচ ইমামের অনুসৃত মাযহাব মতে সে মুসাফির তাই সে (ইমাম) কসর পড়ে কিংবা হানাফী মাযহাব মতে ইমাম মুসাফির কিন্তু ইমামের অনুসৃত মাযহাব মতে সে মুকীম ফলে সে চার রাক’আত পড়ে। এমতাবস্থায় হানাফী মুক্তাদির জন্য উক্ত ইমামের ইক্তেদা করা যাবে না।

এমনিভাবে ভিন্ন মাযহাব অবলম্বী ইমাম দুই ওয়াক্ত নামায এক ওয়াক্তের ভিতর পড়তে গিয়ে যে নামাযটিকে তাঁর ওয়াক্ত আসার আগেই পড়বে সে নামাযটিতে হানাফী মুক্তাদী ওই ইমামের ইক্তেদা করতে পারবে না।

পক্ষান্তরে, হানাফী মুক্তাদী যদি এ ব্যাপারে নিশ্চিত থাকেন যে, উক্ত ইমাম শুধু ফরযগুলোর ক্ষেত্রে হানাফী মাযহাবের রেয়াত করেন, ওয়াজিব ও সুন্নাতগুলোর ক্ষেত্রে করেন না, তা হলে তার ইক্তেদা করা মাকরূহে তাহরীমি। হানাফী ইমাম পাওয়া না গেলে একা পড়া ভালো। তবে হানাফী মুক্তাদী যদি এ ব্যাপারে নিশ্চিত থাকেন যে, উক্ত ইমাম শুধু ফরয ও ওয়াজিবের রেয়াত করেন কিন্তু সুন্নাতগুলোর রেয়াত করেন না, তা হলে তার পিছনে ইক্তেদা করা মাকরূহে তানযীহি। হানাফী ইমাম পাওয়া না গেলে একাকী পড়ার চেয়ে ইক্তেদা করা ভালো।

ইমাম মুক্তাদীর মাযহাব মতে ফরয-ওয়াজিবের রেয়াত করেন কি করেন না তা যদি জানা না থাকে, তা হলে ইক্তেদা করা মাকরূহে তাহরীমি।

এখন কথা হলো লা-মাযহাবী যে মাযহাব চতুষ্টয়ের কোন মাযহাব মানে না ইমামের পিছনে ইক্তেদা নিয়ে, এ ব্যাপারে লক্ষণীয় হলোঃ সেই লা-মাযহাবী যদি এমন ভ্রান্ত আকীদায় বিশ্বাসী হয় যার ফলে সে কাফের না হলেও ফাসেক হয়ে যায়, যেমন মাযহাব মেনে চলাকে শিরক মনে করা বা মুজতাহিদ ইমামগণের প্রতি ঘৃণা পোষণ করা ইত্যাদি। এ ধরণের লা-মাযহাবী ইমামের ইক্তেদা করা মাকরূহে তাহরীমি। একা পড়া ভালো।

পক্ষান্তরে, যদি লা-মাযহাবী ইমাম, সঠিক আকীদা পোষণ করেন এবং হানাফী মাযহাব মতে নামাযের ফরয, ওয়াজিব ও ‍সুন্নাতসমূহের প্রতি লক্ষ্য রাখেন, তা হলে তার ইক্তেদা করা জায়েয। আর যদি রেয়াত লক্ষ্য না করেন, তা হলে ভিন্ন মাযহাব অবলম্বী ইমামের ইক্তেদা করার ব্যাপারে যে সিদ্ধান্ত পূর্বে উল্লিখিত হয়েছে তা এখানেও প্রযোজ্য।

 

তথ্যসূত্রঃ

তাহতাবী আলাল মারাকী ২৩২, আদদ্দুরুল মুখতার ২/৮, শামী ২/৭, আহসানুল ফাতাওয়া ৩/২৮২, মাহমুদিয়া ২/৭১

 

সমাধান লিখনে-

মুফতী মাহবুব হাসান

মুহাদ্দিস,

মাদরাসায়ে হালিমাতুস সাদিয়া রা. ঢাকা।

অনুগ্রহ করে প্রচারের জন্য শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Muftimahbub.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com