সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৩:১৪ অপরাহ্ন

সর্বোশেষ:
সহবাসের জন্য মাসিক বন্ধ করার বিধান কি? পুরুষদের হাতে মেহেদী দেওয়া! হস্তমৈথুনকারীর উপর গোসল ফরয নয়? যৌনি পথে বীর্যপাত না হলে গোসল করতে হবে না? পাকা ফ্লোর পবিত্র করার নিয়ম ঋতুস্রাব মনে করে নামায ছেড়ে দেওয়া কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ে কি বৈধ? জন্মবার্ষিকী কি শিরক? স্ত্রীর অনুমতি ছাড়া সফর বৈধ নয় কেন? হযরত ঈসা আ.কে অবৈধ সন্তান বলা মাহরামের সাথে বিয়ে অবৈধ হওয়ার রহস্য বাসর রাতে নববধূর সহবসে বারণ বিড়ি সিগারেট সেবন করা কি বৈধ? জবেহকৃত পশুর কোন কোন অংশ খাওয়া হারাম? একাধিক স্ত্রীর সাথে সহবাস কিভাবে করবে? ইসলামে কি পীর মুরিদ আছে? লা-মাযহাবীর পিছনে নামায পড়া পশ্চাদ দিক হতে স্ত্রীর যৌনাঙ্গে সহবাস করা খতনা উপলক্ষে অনুষ্ঠান করা কি বৈধ? অহংকার

ইসলামের কাটগড়ায় শায়খুল ইসলাম

মাসআলাঃ যদি কোন মহিলা কামভাব গত বয়স্কা হয়, তা হলে তার হাত মিলানো এবং তাকে স্পর্শ করাতে কোন দোষ নেই। কেননা এখানে ফিতনার ভয় নেই। -হিদায়া কিতাবুল কারাহিয়াহ

আলোচ্য মাসআলায় বলা হয়েছে, মহিলা যদি বয়স্কা ও বৃদ্ধা হয় যাকে দেখে কামভাব জাগ্রত হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই তার চেহারা ও হাত স্পর্শ করাতে কোন দোষ নেই। কারণ ওই শ্রেণীর মহিলাদের স্পর্শ করাতে ফিতনার ভয় নেই।

মাসআলার বর্ণনা দ্বারা বুঝা যায় যে, যদি স্পর্শকারী কামভাব সম্পন্ন হয় তাতেও কোন সমস্যা নেই। কিন্তু মাবসূত কিতাবের অন্য বর্ণনায় বলা হয়েছে যে, স্পর্শকারী বৃদ্ধ হয় এবং যাকে স্পর্শ করা হচ্ছে সেও বৃদ্ধা হয়, তা হলে কোন সমস্যা নেই। সুতরাং কোন একজন যদি যৌনক্ষমতা সম্পন্ন হয় তা হলে তার জন্য অপরজনকে স্পর্শ করা আদৌ ঠিক হবে না।

শরয়ী দলীলঃ

وقد روي أن أبا بكر رضي الله عنه كان يدخل بعض القبائل التي كان مسترضعا فيهم وكان يصافح العجائز

অনুবাদঃ বর্ণিত আছে যে, হযরত আবু বকর সিদ্দীক রাযি. এমন কিছু গোত্রে যাতায়াত করতেন যেগুলোতে তিনি (শিশুকালে) দুধপান করেছিলেন এবং তিনি (সেখানে) বৃদ্ধা মহিলাদের সাথে হাত মিলাতেন।

وعبد الله بن الزبير رضي الله عنه استأجر عجوزا لتمرضه، وكانت تغمز رجليه وتفلي رأسه

অনুবাদঃ আর আবদুল্লাহ ইবনে যুবইর রাযি. একজন বৃদ্ধা রমণীকে তার সেবার জন্য ভাতা প্রদানের চুক্তিতে নিয়োগ দিয়েছিলেন। সে তার পা টিপে দিত এবং মাথার উকুন বেছে দিত।

 

উল্লেখিত মাসআলা জানার পরে। শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমাদ শফী দা. বা.। যিনি একজন সত্তরোর্ধ বৃদ্ধা মহিলাকে যিনি আবার দেশের একজন প্রধানমন্ত্রী। তাছাড়া নির্জনে নয়; বরং লক্ষ লক্ষ উলামায়ে কেরামের ভরা মজলিসে সম্পূর্ণ দীনি স্বার্থে সামান্য হাতের আঙ্গুলের অগ্রভাগ স্পর্শের সুযোগ দিয়েছেন। একে ঘিরে যদি কেউ পর্দাহীনতা কিংবা নির্লজ্জতা ও শরীআত লঙ্ঘন বলে, তা হলে আমাদের বলতে হবে এটা অবশ্যই শরীআতের বিষয়ে বাড়াবাড়ি। এবং একজন আলেমকে কলুষিত করার উদ্দেশ্যমূলক অপচেষ্টা।

আল্লাহ তাআলা এই অপচেষ্টাকারীদেরকে হিদায়েত দান করুন। আমীন। (চলবে ইনশাআল্লাহ…)

অনুগ্রহ করে প্রচারের জন্য শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Muftimahbub.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com